বুধবার, ২৯শে জানুয়ারি ২০২০ ইং, ১৬ই মাঘ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |আর্কাইভ|
কুবি ছাত্রীকে যৌন হয়রানি অভিযোগে চাকরিচ্যুত চালক
ডিসেম্বর ১৯, ২০১৯
কুবি ছাত্রীকে যৌন হয়রানি অভিযোগে চাকরিচ্যুত চালক

তানভীর আহমেদ, কুবি প্রতিনিধি:
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে এক ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ ওঠার পর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বহনকারী রাষ্ট্রীয় বিআরটিসি বাসের চালককে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে। বুধবার (১৮ ডিসেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শহরগামী দুপুর বারোটার ৯ নম্বর বাসে এই ঘটনার পর বৃহস্পতিবার এ সিদ্ধান্ত নেয় সংশ্লিষ্ট প্রশাসন।

বৃহস্পতিবার (১৯ ডিসেম্বর) বাসচালকের শাস্তি চেয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রধান ফটকে তালা ঝুলিয়ে দিনব্যাপী বিক্ষোভ করে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীরা।

জানা যায়, অভিযুক্ত ওই বাসচালকের নাম মো: খোকা মিয়া (৪৩)। তিনি পরিবারসহ কুমিল্লার ধর্মপুর ডিগ্রি কলেজ এলাকায় থাকেন।

এদিকে অভিযুক্ত এই চালককে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্পোরেশন, কুমিল্লা থেকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে। কুমিল্লা বাস ডিপোর ম্যানেজার (অপারেশন) কামরুজ্জামান স্বাক্ষরিত এক ‘নিয়োগাদেশ বাতিল’ বিজ্ঞপ্তি থেকে এ তথ্য জানা যায়।

অভিযোগকারী ওই শিক্ষার্থী জানান, বুধবার অসুস্থতার কারণে সকাল ১১ টায় ৯ নম্বর বিআরটিসি বাসে উঠে ঘুমিয়ে পড়ি। ঘুম ভাঙলে দেখি আমি বাসে একা, আর বাস তখন বেলতলিতে। বাসে শুধুমাত্র ড্রাইভার মামা আর হেলপার মামা ছিল আর আমি ছিলাম। বাসের ড্রাইভার আমাকে বলেন বাস নষ্ট হয়েছে কিছু কাজ আছে আর গ্যাস নিতে হবে। আমাকে তিনি বাসেই বসতে বলেন।

ভুক্তভোগী ছাত্রী জানান, আমাকে বাসচালক বিভিন্ন ব্যক্তিগত প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করতে শুরু করেন। জিজ্ঞাসা করেন-অনেক শিক্ষার্থী এই বন্ধে ট্যুরে কক্সবাজার যাচ্ছে, আমি যাবো কিনা ট্যুরে। আমি না করলে তিনি আমাকে বলেন আমি কক্সবাজার ট্যুরে যাবো, ২-৩ দিন থাকব। আপনার নাম্বারটা দিবেন? যাওয়ার আগে আপনাকে কল দিব। আপনি যাবেন কিনা এটা জিজ্ঞেস করতে। আমি তখন বারবার নিষেধ করলেও বাসচালক আমাকে একইভাবে বিরক্ত করতে থাকেন এবং তার হেলপারকে ডাক দিয়ে নিজের টিশার্ট বুকের উপর উঠিয়ে অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি শুরু করেন। তারপর আমি কোনোরকমে বাস থেকে নেমে চলে আসি। এরপরও তিনি আমাকে অনুসরণ করছিলেন। আর বলছিলেন- আমার ইচ্ছে করছে আমি আপনাকে একা শহরে নিয়ে যাই।

বাসচালকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চেয়ে ভুক্তভোগী ছাত্রী বলেন, ‘আমরা মেয়েরা কি কোথাও সেইফ না? লোকাল বাস বাদ দিলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসেও মেয়েদের হয়রানির শিকার হতে হবে? আমি এর যথাযথ বিচার চাই যাতে পরবর্তীতে কোনো ছাত্রী এমন অবস্থার স্বীকার না হয়।’

অভিযুক্ত বাসচালক খোকা মিয়া ছাত্রীকে যৌন হয়রানির কথা অস্বীকার করে বলেন, ‘আমি ওরকম কিছু বলি নাই। পাম্পে থাকা অন্যান্য ড্রাইভার ও মেকানিকদের সাথে আমি দুষ্টামি করে তাদের পেট দেখাইছি। এটা দেখে হয়তো ওই মামা (ছাত্রী) মাইন্ড করে থাকতে পারে। তাই উনি আমারে জিগাইছেন আমি এর আগে কোন রুটে গাড়ি চালাইছি? আমি বলছি সুনামগঞ্জ, জাফলং, কক্সবাজার। আপনারা তো সামনে ১০দিনের বন্ধে অনেকে কক্সবাজার যাইবেন। উনি তখন যাবে না বললে আমি বলছি- অসুবিধা নাই। আমরা তো ঐ রুটে গাড়ি চালাই, আপনাদের কখনও প্রয়োজন হলে বইলেন। এর বাইরে আর কিছু হয় নাই। কিন্তু বুঝলাম না উনি তখন কতো ভালো কথা বললো আর এখন শুনলাম সারাদিন শেষে রাতে এসে আমার নামে বিচার দিছে।’

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর ড. কাজী মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন জানান, ‘ভুক্তভোগী ছাত্রী থেকে লিখিত অভিযোগ পেয়ে আমরা তা স্থানীয় সদর দক্ষিণ থানায় ব্যবস্থা নিতে প্রেরণ করেছি। এদিকে বৃহস্পতিবার সকালে অভিযুক্ত চালককে বিআরটিসি থেকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে।’

Print Friendly, PDF & Email