রবিবার, ১৭ই নভেম্বর ২০১৯ ইং, ২রা অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |আর্কাইভ|
header-ads
কোন আন্তর্জাতিক ম্যাচ না খেলেও বাংলাদেশের প্রধান কোচ হলেন রাসেল ডমিঙ্গো
আগস্ট ১৯, ২০১৯
কোন আন্তর্জাতিক ম্যাচ না খেলেও বাংলাদেশের প্রধান কোচ হলেন রাসেল ডমিঙ্গো

ক্রীড়া প্রতিবেদকঃ
কোন আন্তর্জাতিক ম্যাচ না খেলেও বাংলাদেশের নতুন প্রধান কোচ হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। তিনি স্টিভ রোডসের স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন। রোডসের সঙ্গে চুক্তি বিচ্ছেদের মাস দুয়েকের মধ্যেই নতুন প্রধান কোচের নাম ঘোষণা করল বিসিবি

গত ১৭ই আগস্ট মিরপুর শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন নতুন কোচের নাম ঘোষণা করেন। এর আগে গত ৭ই অগাস্ট ঢাকায় এসে বিসিবির কাছে নিজের কর্মপরিকল্পনা তুলে ধরেছিলেন রাসেল ডমিঙ্গো। সাক্ষাৎকারে ডমিঙ্গো দুই ভাবে তাঁর পরিকল্পনা তুলে ধরেছিলেন বিসিবির পরিচালকদের সামনে। একটি পরিকল্পনা ২০২০ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ সামনে রেখে। আরেকটি ২০২৩ ওয়ানডে বিশ্বকাপকে লক্ষ্য রেখে। ২১ আগস্ট বাংলাদেশের কোচ হিসেবে আনুষ্ঠানিকভাবে কাজে যোগ দেবেন দুই বছরের জন্য চুক্তিতে নিয়োগ পাওয়া ৪৪ বছর বয়সী ডমিঙ্গো। এরই মাধ্যমে ক্রিকেট টিমের প্রধান কোচ হিসেবে ২ বারের জন্য যাত্রা শুরু হবে।

রাসেল ক্রেগ ডোমিঙ্গো ৩০ আগস্ট,১৯৭৪ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার পোর্ট এলিজাবেথে জন্মগ্রহণ করেন। ২০১২ সালে দক্ষিণ আফ্রিকা জাতীয় ক্রিকেট দলের প্রধান কোচ হন। বিশ বছর বয়সে ঘরোয়া ক্রিকেটের ইস্টার্ন প্রভিন্স দলে খেলোয়াড় হিসেবে অন্তর্ভুক্তির চেষ্টা চালালেও তিনি ব্যর্থ হন। পরবর্তীকালে ক্রীড়া প্রশাসন ও বিপণন বিষয়ে ডিগ্রি অর্জন করে কোচিং কার্যক্রমে মনোনিবেশ ঘটান রাসেল ডোমিঙ্গো। মাত্র পঁচিশ বছর বয়সে ইস্টার্ন প্রভিন্স দলে পেশাদার কোচ হিসেবে মনোনীত হন।

রাসেলের প্রথম অ্যাসাইনমেন্ট দেশের মাঠেই। সেপ্টেম্বরের শুরুতে আফগানিস্তানের বিপক্ষে একমাত্র টেস্ট, জিম্বাবুয়ে ও আফগানিস্তানকে নিয়ে টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট খেলবে বাংলাদেশ।

সংবাদ সম্মেলনে বিসিবি প্রধান নাজমুল জানান,‘অনেকেই বাংলাদেশের কোচ হতে আগ্রহ দেখিয়েছিলেন। শেষ পর্যন্ত আমাদের হাতে দুজন ছিল। তারমধ্য থেকে একজনকে চূড়ান্ত করেছি। আমাদের জাতীয় দলের হেড কোচ হিসেবে রাসেল ক্রেইগ ডমিঙ্গোকে নিয়োগ দিচ্ছি। গতকালই তাকে নিশ্চিত করা হয়েছে । আজ আপনাদের সামনে ঘোষণা করলাম।’

রাসেল ছাড়াও বাংলাদেশ দলের প্রধান কোচ হতে বিসিবির সংক্ষিপ্ত তালিকায় ছিলেন নিউজিল্যান্ডের সাবেক কোচ মাইক হেসন। আভাস ছিল রাসেল বা হেসনের কেউই হতে যাচ্ছেন সাকিব আল হাসানদের কোচ।

নানা হিসেব নিকেশ করে শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশ দল নিয়ে কর্মপরিকল্পনা পছন্দ হওয়ায় রাসেলকে বেছে নিল বিসিবি।

এবারের বিশ্বকাপে প্রত্যাশা পূরণ না হওয়ায় চুক্তির মেয়াদ থাকলেও রোডসের সঙ্গে পারষ্পারিক সমঝোতায় সম্পর্ক ছিন্ন করে বিসিবি। বিশ্বকাপের পর পর শ্রীলঙ্কায় তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে অন্তর্বর্তী প্রধান কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন খালেদ মাহমুদ সুজন। কিন্তু ওই সিরিজে দল ৩-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশড হয়ে ফেরায় নতুন কোচ দ্রুত নিয়োগের তোড়জোড় শুরু করে বোর্ড।

গত ৭ অগাস্ট কোচ হতে আগ্রহী দক্ষিণ আফ্রিকান রাসেল ডমিঙ্গো সরাসরি ঢাকা এসে সাক্ষাতকার দিয়ে যান। রাসেলের সাক্ষাতকারের খুশি হলেও মাইক হেসনের নাম ছিল জোরেসোরেই আলোচনায়। তিনি সরাসরি না এলেও ভিডিও কনফারেন্সে তার সঙ্গে বিসিবি কথা বলেছে বলে জানা যায়। এই দুজন ছাড়াও আরও কয়েকজনের সঙ্গেও কথা হয়েছে বোর্ডের।

বিশ্বকাপ শেষে দল দেশে ফেরার পরই গত ৮ জুলাই রোডসের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে বিসিবি। ইংলিশ এই কোচের সঙ্গে বাংলাদেশ দলের চুক্তি ছিল সামনের বছরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত।

Print Friendly, PDF & Email