শনিবার, ১৬ই নভেম্বর ২০১৯ ইং, ১লা অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |আর্কাইভ|
header-ads
জাবি ভিসিকে ‘শয়তান’ বললেন ভিসিপন্থী শিক্ষক
অক্টোবর ২৮, ২০১৯
জাবি ভিসিকে ‘শয়তান’ বললেন ভিসিপন্থী শিক্ষক

জাবি প্রতিনিধিঃ
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের অপসারণের দাবিতে ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ ব্যানারে আন্দোলন করছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের একটি অংশ। অন্যদিকে উপাচার্যের পক্ষে অবস্থান করছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যপন্থী শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের একাংশ।

তবে এবার উপাচার্যকে ‘শয়তান’ বলে আখ্যায়িত করেছেন ভিসিপন্থি এক শিক্ষক নেতা। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের আওয়ামীপন্থি শিক্ষকদের সংগঠন ‘বঙ্গবন্ধু শিক্ষক পরিষদ’র সাধারণ সম্পাদক এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের সরকার ও রাজনীতি বিভাগের অধ্যাপক বশির আহমেদ।

উপাচার্যের বিরুদ্ধে চলমান আন্দোলনে উপাচার্যকে সহযোগিতা করতে কিছুদিন আগে  ‘অন্যায়ের বিরুদ্ধে এবং উন্নয়নের পক্ষে জাহাঙ্গীরনগর’ নামে একটি নতুন প্লাটফর্ম গঠন করেন উপাচার্যপন্থি শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা। এই প্লাটফর্মের নামে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ম্যাসেঞ্জারে একটি গ্রুপ খোলেন তারা।

গতকাল এই চ্যাটিং গ্রুপে তিনি সকল সদস্যকে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়নের পক্ষে উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের পাশে থাকার আহ্বান করে একটি মেসেজ দেন। কিন্তু তিনি ম্যাসেজে উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের জায়গায় ‘শয়তান ইসলাম’ লেখেন।

পাঠকদের সুবিধার্থে ম্যাসেজের কিছু অংশ সরাসরি তুলে ধরা হলো- ‘আপনার আমার সকলের প্রিয় জাহাঙ্গীরনগরের জন্য, উন্নত জাহাঙ্গীরনগরের জন্য শয়তান ইসলামের পাশে থাকি’।

এদিকে এ বিষয়ে ‘অন্যায়ের বিরুদ্ধে এবং উন্নয়নের পক্ষে জাহাঙ্গীরনগর’ প্লাটফর্মের একাধিক শিক্ষক অভিযোগ করেছেন, এই ম্যাসেজ লেখার সময় অধ্যাপক বশির আহমেদ মদ্যপ অবস্থায় ছিলেন। এই ম্যাসেজের অন্যান্য শব্দ ও বাক্য থেকে এটা স্পষ্ট যে, ভূল করে ফারজানা ইসলামের জায়গায় ‘শয়তান ইসলাম’ হওয়ার কথা নয়।

এবিষয়ে জানতে চাইলে অধ্যাপক বশির আহমেদ বলেন, ‘এটা সম্পূর্ন ভূলবশত হয়ে গেছে। আমি বাংলা কি-বোর্ড দিয়ে লিখতে পারিনা। তাই গুগল ভয়েস টাইপিংয়ের মাধ্যমে লিখেছিলাম। আমি মুখে ফারজানা ইসলাম বলেছিলাম কিন্তু কিভাবে ভুল হলো বুঝতে পারিনি। তবে আমি দেখা মাত্রই ম্যাসেজটি ডিলেট করে দিয়েছিলাম। পরে সংশোধন করে পুনরায় আবার ম্যাসেজ দিয়েছিলাম।’

মদ্যপ অবস্থায় থাকার অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি জীবনে এসব খাইও না স্পর্শও করিনা। আমি কখনো একটা সিগারেট পর্যন্ত খাই না।’

Print Friendly, PDF & Email