রবিবার, ১৭ই নভেম্বর ২০১৯ ইং, ২রা অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |আর্কাইভ|
header-ads
ঢালিউড অ্যাওয়ার্ডে দর্শকদের ক্ষোভ, আলোচনায় সানি লিওনি
এপ্রিল ১১, ২০১৯
ঢালিউড অ্যাওয়ার্ডে দর্শকদের ক্ষোভ, আলোচনায় সানি লিওনি

দর্পণ ডেস্কঃ
নিউইয়র্কের জ্যামাইকা এলাকার আমাজুরা হলে ৭ এপ্রিল মধ্যরাতে শেষ হয়েছে ‘ঢালিউড ফিল্ম অ্যান্ড মিউজিক অ্যাওয়ার্ড’। শো টাইম মিউজিকের ১৮তম এই আসরে ঢালিউডের পাশাপাশি বলিউডের তারকা সানি লিওনি অংশ নেন। বাংলাদেশ থেকে অন্তত ২০ জন তারকা শিল্পী আসবেন বলে পোস্টারসহ নানা প্রচারমাধ্যমে জানিয়েছিল আয়োজক কর্তৃপক্ষ। তবে অনুষ্ঠানে আসেননি অভিনেতা ও বর্তমান সাংসদ আকবর হোসেন পাঠান ফারুক, ইমন, অভিনেত্রী তিশা, প্রভা ও ভাবনাসহ আট শিল্পী। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন অভিনেতা জাহিদ হাসান ও সাজু খাদেম। অনুষ্ঠানে নাচে অংশ নেন বলিউড অভিনেত্রী সাবেক পর্নো তারকা সানি লিওনি।

অনুষ্ঠানে সানি লিওনির অংশগ্রহণ নিয়ে শুরু থেকে আলোচনা–সমালোচনা হচ্ছিল। এ নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন অনুষ্ঠানে আসা দর্শকেরা।

ব্রুকলিন থেকে আসা আব্বাস উদ্দিন (৪৫) নামের এক নাট্যকর্মী সানি লিওনিকে অনুষ্ঠানে আনার সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, ‘সাংসদ সুবর্ণা মুস্তাফার মতো একজন গুণী শিল্পী এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। তাঁর জন্যই আমি অনুষ্ঠানটিতে এসেছিলাম। কিন্তু তাঁর হাত থেকে পুরস্কার নেওয়ার বিষয়ে বেশির ভাগেরই আগ্রহ ছিল না। সবার আগ্রহ ছিল সানি লিওনির হাত থেকে পুরস্কার নেওয়া ও ছবি তোলায়। আমার কাছে মনে হয়েছে, সুবর্ণা মোস্তফাকে ডেকে এনে অপমান করা হয়েছে। সানি লিওনির নাচের পর দর্শক ব্যাপক হারে কমে যায়। তাহসানের মতো জনপ্রিয় শিল্পী যখন গান করছিলেন, তখন তাঁর সামনে দর্শক ছিল শ দেড়েক। এই হলে ৮৫০ আসন রয়েছে। সানির নাচের সময় হল ছিল কানায় কানায় পূর্ণ। ঢালিউড ফিল্ম অ্যান্ড মিউজিক অ্যাওয়ার্ড শেষ পর্যন্ত হয়ে উঠেছিল সানি লিওনের নাচের অনুষ্ঠান।’

নিউজার্সি থেকে আসা ইভেন্ট ব্যবস্থাপক শাহরিয়ার রিপন খান বলেন, কমিউনিটির বড় বড় ৭০টি প্রতিষ্ঠান থেকে স্পনসর নিয়েছেন আলম। এত বড় ও ব্যয়বহুল এই অনুষ্ঠানটি এত অগোছালো দেখে দুঃখ লাগল। যে শিল্পীরা বাংলাদেশ থেকে এসেছেন তাদেরই পুরস্কার দেওয়া হয়েছে বলে মনে হয়। কিন্তু কোন সিনেমা বা নাটকে অভিনয়ের জন্য বা কোন গানের জন্য এই পুরস্কার দেওয়া হয়েছে—তা উল্লেখ করা হয়নি। ঢালিউড ফিল্ম অ্যান্ড মিউজিক অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানটিকে বিষয়টি প্রশ্নবিদ্ধ করেছে। বেশ কয়েকজন নারী শিল্পী এসেছেন, যাদের নাম কখনো শুনিনি। তাদের কেন আনা হয়েছে বুঝতে পারছি না।’

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশি শিল্পী-কলাকুশলীদের মধ্যে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন মেহের আফরোজ শাওন, মিশা সওদাগর, রিজিয়া পারভিন, আবু হেনা রনি, নাদিয়া, পিয়া বিপাশা, নিশাত সাওলা, নাভেদ আহমেদ, ইশরাত পায়েল, সজল, শিরিন শিলা প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email