রবিবার, ১৭ই নভেম্বর ২০১৯ ইং, ২রা অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |আর্কাইভ|
header-ads
তিন দিন ব্যাপী লালন মেলার শেষ দিন আজ
অক্টোবর ১৮, ২০১৯
তিন দিন ব্যাপী লালন মেলার শেষ দিন আজ

স্টাফ রিপোর্টার, নাছির উদ্দিন আবির
আধ্যাত্মিক সাধক, বাউল সম্রাট ফকির লালন শাইজির ১২৯তম তিরোধান বার্ষিকী উপলক্ষে তিন দিন ব্যাপী লালন মেলার শেষ দিন আজ। কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালি উপজেলার অন্তর্গত ছেউড়িয়া লালন আখড়ায় প্রতি বছরের ন্যায় এবারও তিন দিন ব্যাপী লালন উৎসবের আয়োজন করা হয়।

“মানুষ ভোজলে সোনার মানুষ হবি” বাউল সম্রাট ফকির লালন শাইজি’র এই বাণীকে স্মরণ করে লালন ভক্তদের মিলনমেলা উপলক্ষে কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসন ও লালন একাডেমির পক্ষ থেকে প্রতিবারের ন্যায় এবারও এ উৎসবের আয়োজন করা হয়।

তিন দিন ব্যাপী লালন মেলার আজকে শেষ দিন। গত ১৬ অক্টোবর (বুধবার) থেকে শুরু করে ১৮ অক্টোবর (শুক্রবার) পর্যন্ত মেলা চলে।

দেশ-বিদেশ থেকে লালন ভক্তরা আসেন এই উৎসবে অংশগ্রহণ করতে, পাশাপাশি সারা দেশ থেকে আগত দর্শনার্থীরাও ভীড় করেন এই মেলায়। মেলায় লালন মঞ্চে আলোচনা সভা এবং রাতভর লালন সঙ্গীতানুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়৷ দেশের খ্যাতনামা সব লালন শিল্পীরা এসময় লালন সঙ্গীত পরিবেশন করেন। লালন উৎসবের পাশাপাশি মেলায় দর্শনার্থীদের নজর কারতে বিভিন্ন রকমের তৈজসপত্রের দোকান, শিশুদের জন্য নাগরদোলা, খাবার দোকান লক্ষ করা যায়।

লালন শাইজির মাজার

বাউল সম্রাট ফকির লালন শাইজির মাজার

এদিকে লালন মেলা কে সামনে রেখে মেলা শুরুর পূর্বে থেকেই নিরাপত্তা জোরদার করার জন্য কাজ করে যাচ্ছে কুষ্টিয়া জেলা পুলিশ। পুলিশের পাশাপাশি র‍্যাব, বিজিবি, ট্যুরিস্ট পুলিশ এবং আনসাররাও নিয়মিত কাজ করছে দর্শনার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে। আগত অতিথি এবং দর্শনার্থীদের নিরাপত্তার জন্য মেলার প্রবেশ পথে মেটাল ডিকেটরের মাধ্যমে তল্লাশীর ব্যবস্থা করা হয়।

এছাড়াও মেলার বিভিন্ন স্থানে সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন সহ ওয়াচ টাওয়ার থেকে সার্বক্ষণিক দর্শনার্থীদের গতিবিধি লক্ষ্য করা হয়। সবকিছু মিলিয়ে লালনের ১২৯তম তিরোধান দিবস উপলক্ষে আয়োজিত তিন দিনের এই লালন উৎসব কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই শেষ হয়।

উল্লেখ্য, প্রতি বছর দোল পূর্ণিমা এবং লালন শাইজির মৃত্যুবার্ষিকীতে মোট দুই বার কুষ্টিয়ার কুমারখালি উপজেলার ছেউড়িয়ার লালন আখড়ায় এ লালন উৎসবের আয়োজন করা হয়।

Print Friendly, PDF & Email